লেমন বাম এর উপকারিতা, ব্যবহার এবং পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া – Lemon Balm Benefits, Uses and Side Effects in Bengali

by

লেমন অর্থাৎ লেবু কোনও না কোনওভাবে নিয়মিত আমরা ব্যবহার করে থাকি। এর স্বাদ যেমন ভালো, তেমনই এর গুণ। কিন্তু আপনি কি জানেন অনেকটা লেবুর মতো সুগন্ধযুক্ত একটি ভেষজও রয়েছে? যার নাম লেমন বাম। বিভিন্ন স্বাস্থ্য উপকারিতা পেতে এর ব্যবহার করতে পারেন। আজকের এই প্রতিবেদনে লেমন বামের উপকারিতা, ব্যবহার এবং পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া সম্পর্কে আলোচনা করা হল।

লেমন বাম কী?

লেমন বাম মিন্ট বা পুদিনা পরিবারের একটি উদ্ভিদ। লেমন বামে লেবুর মতো সুগন্ধ থাকে। এই গাছের বৈজ্ঞানিক নাম মেলিসা অফিসিনালিস। ঔষধিগুণ সমৃদ্ধ গাছটি সাধারণত ইউরোপ, পশ্চিম এশিয়া এবং উত্তর আফ্রিকায় পাওয়া যায়। এর পাতার রঙ হলুদ বা গাঢ় সবুজ হয়। পাতা হাতে ঘষলে তীব্র এবং গাঢ় গন্ধ পাওয়া যায়। একে বাম পুদিনা, ব্লু বাম, গার্ডেন বাম এবং সুইট বামও বলা হয় (১)। গবেষণায় দেখা গেছে যে, এটি বিভিন্ন উপায়ে স্ট্রেস কমাতে এবং মানসিক স্বাস্থ্যের উন্নতিতে সাহায্য করতে পারে।

লেমন বাম – এর উপকারিতা

১. কোল্ড সোর (Cold Sore)

কখনও কখনও ঠোঁট এবং নাকের চারপাশে চামড়া লাল হয়ে যায়, ফুসকুড়ি দেখা দেয়। যা কোল্ড সোর নামে পরিচিত। সাধারণভাবে যাকে জ্বর ঠোসা বলা হয়। বছরের অন্যান্য সময়ে হলেও শীতে এই সমস্যা বেশি হয়। জ্বর ঠোসা হলে দেখতে যেমন খারাপ লাগে, ব্যথাও হয় খুব। এটি কেবলমাত্র জ্বরের কারণে হয়ে থাকে না। সাধারণত জ্বর ঠোসার পিছনে হার্পিস সিমপ্লেক্স ভাইরাস দায়ী। সঠিক সময় এর চিকিৎসা না করলে এটি মুখের ঘায়েও রূপান্তরিত হতে পারে (২)। এর থেকে মুক্তি পেতে লেমন বাম ব্যবহার করতে পারেন। এতে অ্যান্টিভাইরাল বৈশিষ্ট্য রয়েছে, যা হার্পিস ভাইরাসের কারণে সৃষ্ট জ্বর ঠোসার যন্ত্রণা থেকে মুক্তি পেতে সাহায্য করতে পারে (৩)

২. অনিদ্রা এবং চিন্তা

মানসিক চাপ, হতাশা, উদ্বেগ এবং নার্ভাসনেসের কারণে অনেকেই রাতে ঠিক করে ঘুমাতে পারেন না। অনিদ্রার সমস্যা এবং উদ্বেগ দূর করতে লেমন বাম উপকারী বলে মনে করা হয়। এটি জলে সেদ্ধ করে সেই জল খেতে পারেন। লেমন বামের মধ্যে অ্যান্টি-স্ট্রেস এবং অ্যানসিলিওলেটিক (anxiolytic) বৈশিষ্ট্য রয়েছে যা স্ট্রেস কমায় এবং ভালো ঘুমাতে সাহায্য করে (৪) (৩)। চিন্তা এবং ভয় দূর করার জন্য অ্যানসিলিওলেটিক হল একটি প্রাকৃতিক ওষুধ।

৩. অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট

লেমন বাম অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট বৈশিষ্ট্য সমৃদ্ধ। যা আপনার শরীরে ফ্রি রেডিক্যালের কারণে সৃষ্ট শারীরিক সমস্যাগুলি কাটিয়ে উঠতে সাহায্য করে (৩)

৪. রেডিয়েশনের ক্ষতি থেকে রক্ষা করে

রেডিয়েশন ক্যান্সার এবং অন্যান্য কিছু রোগ এবং স্বাস্থ্য সমস্যায় ব্যবহৃত হয়। এটি সমস্যা দূর করার পাশাপাশি অন্যান্য সমস্যার কারণও হতে পারে। এমন পরিস্থিতিতে যদি আপনি রেডিয়েশন থেরাপি বা অন্য কোনও রেডিয়েশনের ক্ষতি থেকে নিজেকে রক্ষা করতে চান তাহলে লেমন বাম ব্যবহার করতে পারেন। এটি রেডিয়েশনের কারণে ডিএনএর ক্ষয় রোধ করতে সাহায্য করে। সেইসঙ্গে অক্সিডেটিভ স্ট্রেস কম করতে সাহায্য করে (৩)

৫. প্রতিরোধ ক্ষমতা

লেমন বাম আপনার রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাও বাড়িয়ে তুলতে সাহায্য করতে পারে। কারণ এতে অ্যান্টি- ব্যাক্টেরিয়াল, অ্যান্টিফাঙ্গাল এবং অ্যান্টি-প্যারাসিটিকের মতো অনেক বৈশিষ্ট্য রয়েছে। যা ব্যাক্টেরিয়া ঘটিত রোগ প্রতিরোধ করে। এছাড়াও এর অ্যান্টি-মাইক্রোবিয়াল উপাদান জীবাণুর বৃদ্ধিতে বাধা দেয় (৩) (৫)

৬. মুখে ইনফেকশন

যেমনটা আগেই উল্লেখিত, লেমন বামে অ্যান্টি-ব্যাক্টেরিয়াল, অ্যান্টিফাঙ্গাল এবং অ্যান্টিভাইরাল বৈশিষ্ট্য রয়েছে। লেমন বামের এই বৈশিষ্ট্যগুলি বিভিন্ন ধরণের ভাইরাস এবং ব্যাক্টেরিয়ার সাথে লড়াই করতে পারে (৩), তাই মুখের ইনফেকশন থেকে মুক্তি পেতে এটি ব্যবহার করতে পারেন। মুখের মধ্যে বেড়ে ওঠা ব্যাক্টেরিয়াগুলির সাথে লড়াই করতে লেমন বাম দিয়ে মুখ ধুতে পারেন (৬)। আপনি যদি মুখের সংক্রমণের কারণে মাড়ি ফোলা বা ব্যথায় ভুগছেন তবে এর মধ্যে উপস্থিত অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেটরি এবং অ্যানালজেসিক বৈশিষ্ট্য আপনাকে স্বস্তি দিতে পারে। সংক্রমণের জায়গায় এর পেস্ট তৈরি করে লাগাতে পারেন।

৭. চিন্তা

আগেই উল্লেখ করা হয়েছে যা লেমন বামে অ্যান্টি স্ট্রেস এবং অ্যানসিলিওলেটিক (anxiolytic) বৈশিষ্ট্য রয়েছে। লেমন বামে উপস্থিত এই বৈশিষ্ট্যগুলি আপনাকে মানসিক চাপ থেকে মুক্তি পেতে সাহায্য করতে পারে। অ্যানসিলিওলেটিক ওষুধের মতো কাজ করে যা উত্তেজনা এবং স্নায়ুর ক্লান্তি কম করতে সাহায্য করে (৪)

৮. ওজন

আজকাল অনেকেই অতিরিক্ত ওজন বৃদ্ধির সমস্যায় ভুগছেন। আপনি যদি এই সমস্যায় পড়ে থাকেন তাহলে লেমন বাম চা খেতে পারেন। কারণ লেমন বামে রয়েছে ফ্লাভোনয়েড, যা ওজন নিয়ন্ত্রণ করতে সাহায্য করে (৭) (৮)  

৯. ডায়াবেটিস

লেমন বাম অ্যান্টি-ডায়াবেটিক হিসেবে কাজ করে। এটি গ্লুকোজ লেবেল নিয়ন্ত্রণ করতে সাহায্য করে (৮)। এছাড়াও লেমন বাম এর তেল টাইপ – ২ ডায়াবেটিস রোগীদের রক্তে গ্লুকোজের মাত্রা মাত্রা কমাতে সহায়ক বলে প্রমাণিত হয়েছে (৯)

১০. থাইরয়েড

লেমন বাম থাইরয়েডকে বাড়তে দেয় না। এটি শরীরে থাইরয়েড ইনহিবিটারের মতো কাজ করে (১০)। গবেষণায় দেখা গেছে, লেবমন মামের শুকনো এক্সট্র্যাক্ট থাইরয়েড হরমোনের ভারসাম্য বজায় রাখে। এছাড়াও এটি থাইরয়েড হরমোনেগুলিকে অতিরিক্ত উত্তেজিত হওয়া থেকে রক্ষা করে। তবে মনে রাখবেন, এটি থাইরয়েড সম্পর্কিত ওষুধগুলিকেও প্রভাবিত করতে পারে (১১)। সুতরাং থাইরয়েড থাকলে এটি ব্যবহারের আগে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নিন।

১১. মাথাব্যথা

মাথা ব্যথা কমাতেও এটি সহায়ক বলে মনে করা হয়। সেই কারণে এই বিভিন্ন ধরণের অ্যারোমাথেরাপিতে ব্যবহৃত হয়। আসলে এর মধ্যে অ্যানালজিসিক এবং অ্যাসিওলোলিটিক বৈশিষ্ট্য রয়েছে যা মাথা ব্যথা নিরাময়ে সাহায্য করে। এছাড়াও মেজাজ ঠিক করতে এটি বেশ উপকারী (১২)

১২. হার্বাল টি

লেমন বামের মধ্যে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং অন্যান্য প্রয়োজনীয় উপাদান রয়েছে, সেই কারণে এটি হার্বাল চায়ে ব্যবহার করা হয়। কিছু দেশে লেমন বামের পাতা দিয়ে তৈরি চা মাইগ্রেন, অনিদ্রা এবং পেটের রোগের চিকিৎসার জন্য বিকল্প ওষুধ হিসেবে ব্যবহৃত হয়। এছাড়াও হার্টকে শক্তিশালী করতে এবং স্মৃতি শক্তি উন্নত করতে এই চা খাওয়া হয় (১৩)

১৩. ত্বক

এটি ত্বকের সুস্বাস্থ্য বজায় রাখতে সাহায্য করে (১৪)। এছাড়াও এটি সূর্যের অতিবেগুনী রশ্মির কারণে ত্বকের ক্ষয় কম করতে সহায়ক। এতে উপস্থিত রোসমারিনিক অ্যাসিড, সালভিনলিক অ্যাসিড, ক্যাফিক অ্যাসিড এবং লুটোলিন গ্লুকোরোনাইড ত্বকের জন্য উপকারী (১৫)। আপনি এটি ত্বকের টোনার হিসেবেও ব্যবহার করতে পারেন (১১)

১৪. খাবারে ব্যবহার

লেমন বাম খাবারেরও ব্যবহার করা যেতে পারে। লেবমন বাম তাজা এবং শুকনো উভয়ভাবেই খাবারে দিতে পারেন। বার্গার, প্যাটিসে ফ্লেভার যোগ করতে ব্যবহার করা হয়। এছাড়াও এটি মাংসে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট গুণ যোগ করতে ব্যবহৃত হয় (১৬)

লেমন বামের পুষ্টিগত মান

লেমন বাম (মেলিসা অফিসিনালিস) এর মধ্যে ভিটামিন সি এবং থায়ামিন (ভিটামিন বি) উভয়ই থাকে। লেমন বামের প্রতি ১০০ মিলিলিটার দ্রবণীয়তে ২৫৪ মিলিগ্রাম ভিটামিন সি পাওয়া যায়। অন্যদিকে যখন লেমন বামের পাতা শুকিয়ে সংরক্ষণ করা হয়, তখন ভিটামিন সি এর পরিমাণ ৫০ শতাংশ কমে যায়। এটিকে ফ্রিজে রাখলে ২৫ শতাংশ ভিটামিন সি কমে যায়। থায়ামিনের পরিমাণ সম্পর্কে বললে, প্রতি ১০০ মিলিলিটার দ্রবণে ৭৬.৪ মাইক্রোগ্রাম থায়ামিন পাওয়া যায় (১১)

লেমন বামের ব্যবহার

লেমন বাম ব্যবহারের উপকারিতা সম্পর্কে জেনে নিলেন, এবার জানুন কীভাবে এটি ব্যবহার করতে পারবেন :

  • লেমন বাম আপনি পেস্ট হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন।
  • লেমন বাম দিয়ে কাড়া তৈরি করে খেতে পারেন।
  • লিপ বাম তৈরি করতে এটি ব্যবহার করা যেতে পারে।
  • আপনি লেমন বামের পাতা পিষে ফেসপ্যাক হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন।
  • হার্বাল চা হিসেবে খেতে পারেন।

লেমন বামের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া

লেমন বামের উপকারিতা যেমন রয়েছে, ঠিক তেমনই এর পাশ্বপ্রতিক্রিয়াও রয়েছে। অতিরিক্ত ব্যবহারের কারণে নানা শারীরিক সমস্যা দেখা দিতে পারে (১৭) (৩)

  • লেমন বামে হাইপোগ্লাইসেমিক বৈশিষ্ট্য রয়েছে। উচ্চ রক্তচাপের ক্ষেত্রে এটি উপকারী। তবে যদি অতিরিক্ত মাত্রায় গ্রহণ করা হয় তবে এটি শরীরে গ্লুকোজের মাত্রা এতোটাই কমিয়ে দেয় যে আপনি দুর্বল বোধ করতে পারেন।
  • গর্ভাবস্থার জন্য এটি মোটেও নিরাপদ নয়। তাই গর্ভবতী মহিলাদের এটি এড়িয়ে চলা ভালো।
  • যারা সন্তানকে স্তন্যপাণ করাচ্ছেন তাদের জন্যও এটি নিরাপদ নয়।
  • শিশু বিশেষ করে যার কোনও শারীরিক সমস্যা রয়েছে তাদের জন্যও এটি অনিরাপদ হিসেবে বিবেচিত হয়েছে।
  • যারা থাইরয়েডের ওষুধ খান তারা এর ব্যবহার থেকে বিরত থাকুন। তাছাড়াও অন্য কোনও শারীরিক সমস্যা থাকলে লেমন বাম গ্রহণের আগে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নিন।

লেমন বামের স্বাস্থ্য উপকারিতা লাভ করতে এটি খাবারে ব্যবহার করতে পারেন। আপনি চাইলে চায়ের বিকল্প হিসেবেও ব্যবহার করতে পারেন। এই প্রতিবেদনে প্রদত্ত সুবিধাগুলি জানার পর আপনি যদি মনে করেন যে আপনার কোনও শারীরিক সমস্যার সমাধান লেমন বামে লুকিয়ে আছে, তাহলে অবশ্যই এটি ব্যবহার করতে পারেন। তবে ব্যবহারের সময় খেয়াল রাখবেন, এটা যাতে অতিরিক্ত পরিমাণে ব্যবহার না করেন। এর থেকে আপনার যদি কোনও অ্যালার্জি দেখা দেয় তাহলে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নিন।

প্রায়শই জিজ্ঞাসিত প্রশ্নাবলী :

লেমন বাম কী অ্যান্টিভাইরাল?

লেমন বামে অ্যান্টিভাইরাল বৈশিষ্ট্য রয়েছে। কোল্ড সোর বা জ্বর ঠোসা থেকে মুক্তি পেতে এটি খুব উপকারী।

লেমন বাম কি উদ্ভিদ?

লেমন বাম একাধিক গুণ সমৃদ্ধ একটি ভেষজ। অনেকটা পুদিনা গাছের মতো দেখতে। এর পাতা লেবুর সুগন্ধযুক্ত।

আপনি কী প্রতিদিন লেমন বাম ব্যবহার করতে পারেন?

পরীক্ষায় প্রমাণিত, লেমন বাম খাওয়া সম্পূর্ণ নিরাপদ। এটি ৪ মাস পর্যন্ত নিরাপদে গবেষণায় ব্যবহার করা হয়েছে। পার্শ্ব প্রতিক্রিয়াগুলি খুব হালকা। সাধারণত ক্ষুধা, বমি বমি ভাব, পেটে ব্যথা, মাথা ঘোরা ইত্যাদি প্রতিক্রিয়া দেখা যায়।

লেমন বাম কী লিভারের জন্য খারাপ?

অতিরিক্ত মাত্রায় এর ব্যবহারে লিভার টিস্যু ড্যামেজ হতে পারে। তবে পরিমিত মাত্রা ব্যবহারে ফ্যাটি লিভারের সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে পারেন।

লেমন বাম চা কী ঘুমের জন্য উপকারী?

লেমন বামের মধ্যে অ্যান্টি-স্ট্রেস এবং অ্যানসিলিওলেটিক বৈশিষ্ট্য রয়েছে যা স্ট্রেস কমায় এবং ভালো ঘুমাতে সাহায্য করে।

উদ্বেগ কাটাতে কীভাবে লেমন বাম চা তৈরি করবেন?

১. কয়েক ফ্রেস লেমন বামের পাতা নিন।

২. ভালো করে পরিষ্কার করে ছোট ছোট করে কেটে নিন।

৩. চা তৈরির সময় চায়ে বিকল্প হিসেবে লেমন বাম পাতা ব্যবহার করুন। ভালো করে ফুটিয়ে নিন।

৪. তারপর কাপে ঢেলে গরম গরম খান লেমন বাম চা।

লেমন বামে কি অ্যাডিকটিভ?

চিন্তা, হয়, উদ্বেগ কাটানোর জন্য ওষুধ লেমন বাম দারুণ একটি ওষুধের কাজ করে।

লেমন বাম কী মশা তাড়ায়?

লেমন বাম মশা এবং কীটপতঙ্গ তাড়া। কারণ এতে প্রচুর পরিমাণে সিট্রোনেলাল নামক একটি উপাদান রয়েছে, যা লেবুর মতো এবং গাঢ় গন্ধ ছড়ায়। যা মশা এবং অন্যান্য কীটপতঙ্গ সহ্য করতে পারে না।

17 Sources

Was this article helpful?
scorecardresearch