Bengali
Stylecraze

১০ রকমের চমৎকারী ঘরোয়া উপায় ওজন বাড়ানোর

by
১০ রকমের চমৎকারী ঘরোয়া উপায় ওজন বাড়ানোর Hyderabd040-395603080 March 14, 2019

আপনি কি সেই সংখ্যালঘূ বর্গের মধ্যে পড়েন যারা সব সময় দুশ্চিন্তা করেন মোটা কিভাবে হব ? সব থেকে সহজ মোটা হওয়ার উপায় হল ঘরোয়া টোটকা। এই উপায়গুলো সহজেই অবলম্বন করা যায় আর স্বাস্থের জন্যও ক্ষতিকারক নয়। সব থেকে ভালো জিনিস হল এটা আপনার নিয়মিত জীবনে এমন ভাবে যুক্ত হয়ে যায় যে আপনার প্রতিদিনের রুটিনে খুব বেশী হেরফের করতে হয় না। এইগুলোর নিয়মিত ব্যাবহার আপনাকে সহজেই মোটা হতেও সহায়তা করে। ঘরোয়া উপায়ই হল মোটা হওয়ার শ্রেষ্ঠ উপায়।

এখানে ১০ টা টিপস দেওয়া হল যেটা আপনাকে অধিক পরিশ্রম ছাড়াই অতি সহজে মোটা হতে সাহায্য করবেঃ

১। বিশুদ্ধ মাখন ও চিনি

  • এক চামচ বিশুদ্ধ মাখন আর সমান পরিমানে চিনি একসাথে মিশ্রিত করুন
  • এই মিশ্রণ টা আহারের আধাঘণ্টা আগে খালি পেটে সেবন করুন
  • এটার এক মাস নিয়মিত সেবন আপনাকে চমকপ্রদ ফলাফল দেবে

২। মধ্যাহ্নকালীন নিদ্রা

midday sleep Pinit

Shutterstock

  • প্রত্যেকদিন মধ্যাহ্নকালীন নিদ্রা মানে দুপুরের ঘুম অন্তত ৪৫ মিনিট থেকে এক ঘণ্টা নেওয়ার চেষ্টা করুন
  • এটা আপনাকে সহজেই মোটা হতে সাহায্য করবে শুধু সেটাই নয় এটা আপনাকে রাত্রে গভীর নিদ্রায় মগ্ন রাখবে
  • এটা আমাদের সবার পছন্দের একটা মোটা হওয়ার উপায়

৩। আম আর দুধ

  • প্রত্যেক দিন ৩ টে করে আম (পাকা) সেবন করুন
  • আম খাওয়ার পর নিশ্চিত ভাবে এক গ্লাস উষ্ণ গরম দুধ খান

এক মাসের মধ্যে চোখে পড়ার মতন ফলাফল পাবেন

৪। ডুমুর আর কিশমিশ

  • ডুমুর আর কিশমিশ এর মধ্যে অতিরিক্ত ক্যালোরিস আছে যেটা আপনাকে ওজন বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে
  • জলের মধ্যে ৬ টা দুমুরের ফল আর ৩০ গ্রাম কিশমিশ ভিজিয়ে রাখুন রাতভর
  • পরের দিন দুভাগে খাবেন ওটা
  • আপনি ২০ থেকে ৩০ দিনের মধেই এর ফলাফল দেখতে পাবেন।

৫। পিনাট বাটার/ বাদামের মাখন

Peanut butter Pinit

Shutterstock

এতদিনে সবাই জেনেই গেছে যে পিনাট বাটার/ বাদামের মাখনের মধ্যে অতিরিক্ত ক্যালোরি আছে। এটা মোটা হওয়ার একটা অন্যতম উপায়। পিনাট বাটারের লাগান পাঁউরুটির ওপর আর দেখুন এটা আপনার ওজন বৃদ্ধি করতে কিরকম সাহায্য করবে।

৬। আলু

আলু তে কার্বোহাইড্রেট আছে, তাই এতে কোন দ্বিধা নেই যে এটার নিয়মিত সেবন আপনাকে ওজন বাড়াতে সাহায্য করবে। গ্রিল বা বেক করুন আলু মাখন দিয়ে বা ফ্রেঞ্চ ফ্রাইস বানান ভার্জিন তেল দিয়ে যেমন আপনার পছন্দ। যদি আপনি ফ্রেঞ্চ ফ্রাইস খান তাহলে সপ্তাহে দু বারের বেশী খাবেন না।

৭। বাদাম

নানান রকমের বাদাম আপনাকে অনেক পুষ্টি যোগাতে সাহায্য করবে। যেমন আল্মনডস, ওয়ালনাট, সূর্যমুখী ফুলের বীজ, বা ফ্লাক্স বীজ ইত্যাদি। বাদাম চিবিয়ে খেয়ে এর স্বাদ, পুষ্টি উপভোগ করুন আর সাথে ওজন বৃদ্ধি করুন। বাদামের মধ্যে আছে স্বাস্থ্যকর ফ্যাট আর এটা মোটা হওয়ার একটা অন্যতম উপায়। কিন্তু সব সময় এই গুলো খেয়ে নিজের পেট ভরাবেন না খাওয়ার আগে। নাহলে খাওয়ার সময় খেতে ইচ্ছে করবে না।

৮। ডি-স্ট্রেস

স্ট্রেস একটা অন্যতম কারণ মোটা না হওয়ার। যদি আপনার অফিস, দফতর বা বাড়িতে কোন টেনসন থাকে তাহলে যোগাসন বা নিঃশ্বাস প্রঃশ্বাস এর কৌশল এ দক্ষতা অর্জন করে নিন যেটা আপনার শরীর কে স্ট্রেস থেকে মুক্ত রাখবে। যখন আপনি নিজেকে স্ট্রেস থেকে দূরে রাখবেন দেখবেন ওজন বাড়ানো কোন বড় ব্যাপার নয়।

৯। কলা আর দুধ

Bananas and milk Pinit

Shutterstock

আমরা অনেকেই জানি না যে কলা তে অনেক বেশী ক্যালরিস থাকে। এটা আপনাকে তাৎক্ষণিক বল পেতে সাহায্য করে। এবার নিশ্চয়ই বুঝতে পারছেন যে টেনিস খেলোয়াড় রা খেলার বিরতির মাঝে কেন কলা খায়। নিয়ম করে রোজ সকালে একটা করে কলা আর উষ্ণ দুধ এক চামচ চিনি মিশিয়ে খান। এটা শরীরের জন্য স্বাস্থ্যকর।

১০। আল্মনড / কাঠ বাদাম আর দুধ

বাদামের দুধ ওজন বাড়ানোর একটা অন্যতম সহজ উপায়। দুধের মধ্যে কাঠবাদাম, ড্রাইড ফিগ আর খেজুর মিশিয়ে ফোটান তারপর ফুটে গেলে দুধ টা ছেঁকে নিয়ে, এক গ্লাস করে খান। পরবর্তী এক মাস প্রত্যেকদিন নিয়মিত ভাবে সেবন করুন আর দেখুন এর চমৎকার ফলাফল। ফোটানো কাঠবাদাম, ড্রাইড ফিগ আর খেজুর গুলো কে ফেলে না দিয়ে চিবিয়ে খেয়ে নেবেন। এগুলো অত্যন্ত পুষ্টিকর আর শরীরের জন্য লাভদায়ক।

এইগুলোর মধ্যে আপনার যেটা সুবিধে আর সহজ মনে হবে সেইগুলো নিয়মিত ভাবে আপনার জীবনে প্রযোজ্য করুন। এগুলো আপনাকে মন মত ওজন বৃদ্ধি করতে সাহায্য করবে। এই ১০ টা ঘরোয়া উপায়ের ব্যাবহার করুন যদি আপনি সহজ, সাধারণ আর স্বাস্থ্যকর উপায়ে ওজন বৃদ্ধি করতে চান।