থানকুনি পাতার উপকারিতা, ব্যবহার এবং ক্ষতিকর দিক – Gotu Kola Benefits and Side Effects in Bengali

by

থানকুনি পাতার কথা হয়তো আপনারা অনেকেই জানেন কারণ এটি হল ঐতিহ্যগত ও আয়ুর্বেদিক ওষধি গুণ যুক্ত একটি গাছ যা বিশেষ করে ইন্দোনেশিয়া, চীন ও ভারতবর্ষে হয়ে থাকে। এর অনন্য গুণ ও উপকারিতা মস্তিষ্কের শক্তি বিকাশে অসাধারণ রূপে সাহায্য করে এবং নানারকমের মস্তিস্ক সংক্রান্ত সমস্যায় ওষুধের মত কাজ করে।

এশিয়া মহাদেশে বিশেষত নানা জায়গার জলজমিতে  থানকুনি পাতার গাছ জমে থাকে। এই গাছের বৈজ্ঞানিক নাম হল সেন্টেলিয়া আসিয়াটিকা যা একটি শাক অথবা ঔষধি দুই রূপেই ব্যবহৃত হয়ে থাকে। এই থানকুনি পাতার অনন্য উপকারিতার কারণ হল এই গাছ বেড়ে ওঠার সময় মাটি থেকে সর্বোচ্চ মাত্রায় বিভিন্ন মিনারেল ও অন্যান্য উপাদান শোষণ করে থাকে (১)। কিন্তু যেহেতু এর কিছু কিছু উপাদান শরীরের জন্যে ক্ষতিকারক হতে পারে, তাই, আপনার এই পাতা খাদ্য হিসেবে ব্যবহার করার আগে বিশেষ কিছু জিনিস মাথায় রেখে চলা উচিত। আজকের এই পোস্টে আমরা আপনাকে থানকুনি পাতার উপকারিতা ও ব্যবহার সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে জানাতে চাই। আসুন দেখে নেওয়া যাক।

থানকুনি পাতার উপকারিতা – Benefits of Gotu Kola in Bengali

থানকুনি পাতার উপকারিতা নানারকম ভাবে প্রমাণিত হয়েছে। নিচে এই সমস্ত উপকারিতাগুলি বিস্তারিত আলোচনা করা হল। চলুন দেখে নেওয়া যাক।

  • মস্তিষ্কের বিকাশ ঘটায়: Boosts Cognitive Function

প্রতিদিন বেশ খানিকটা করে থানকুনি পাতার রস পান করলে মস্তিষ্কের নানারকম বিকাশ ঘটে যার ফলে মস্তিষ্কের কার্যকারিতা সচল ভাবে চলতে থাকে (২)। বিভিন্ন পশুর ওপরে বৈজ্ঞানিক ভাবে পরীক্ষা করে দেখা গিয়েছে যে স্মৃতিশক্তি ও শেখার ক্ষমতা উন্নত করার জন্যে থানকুনি পাতা বেশ উপকারী। এর সাহায্যে থানকুনি পাতার বিভিন্ন উপাদান নিয়ে এমন কিছু ওষুধ তৈরী করা যায় যা মানুষের স্মৃতি শক্তি ও শেখার ক্ষমতাকেও দারুণ ভাবে উন্নত করে। বুদ্ধির বিকাশ ঘটাতেও এই থানকুনি পাতা দারুণ উপকারী (৩)। এছাড়া এর মধ্যে আছে ফলিক এসিডের তুলোনায় আরো বেশি শক্তিশালী উপাদান। থানকুনি পাতা এন্টি অক্সিডেন্ট উৎপাদন করতে সাহায্য করে (৪)। এর ফলে শরীরে অক্সিডেন্টের মাত্রা কমে ও মানসিক চাপ নিয়ন্ত্রণ হয়।

  • আলজাইমার রোধ করতে সাহায্য করে: May Help Treat Alzheimer’s

থানকুনি পাতায় রয়েছে বিশেষ আয়ুর্বেদিক ঔষধি উপাদান যা মস্তিষ্কের স্নায়ু সচল রাখতে সাহায্য করে। এর ফলে বুদ্ধি ও স্মৃতিশক্তি দীর্ঘায়ু হয় এবং এমন কিছু অপ্ৰয়োজনীয় উপাদান যা স্মৃতি বিন্যাস করে সেই রেডিক্যালগুলি নষ্ট করে দেয় (৫)। আলজাইমার অর্থাৎ বয়সকালে যে স্মৃতিভ্রম সমস্যা দেখা যায় তা অনেকটা রোধ করতে পারে থানকুনি পাতা (৬)। এই ঔষধি পাতা মস্তিষ্কের স্নায়ু বিকাশ করে মাইটোকন্ড্রিয়াল ডিসফাংকশন ও অন্যান্য স্নায়ু বিনাশকারী সমস্যাকে রোধ করে যার ফলে আলজাইমার ও ডিমেনশিয়া রোধ করা যায় (৭)। রক্তে এমলয়েড বিটা মাত্রাকেও কেটে সাহায্য করে থানকুনি পাতা (৮) যা এলিজাইমারের একটি মূল কারণ।

  • অস্থিরতা ও বিষন্নতা রোধ করতে সাহায্য করে: May Treat Anxiety And Depression

একটি বৈজ্ঞানিক পরীক্ষায় প্রমাণিত হয়েছে যে অনেক এমন ব্যক্তি যারা তুমুল অস্থিরতায় ভোগেন তাদের ক্ষেত্রে থানকুনি পাতা থেকে তৈরী ট্যাবলেট দারুন কার্যকরী হয়েছে। পাতায় ৬০ দিনের মাথায় অত্যন্ত মানসিক চাপ, বিষন্নতা, মনোযোগিতা, ও অস্থিরতার মোট সমস্যা থেকে তারা মুক্তি পেয়েছে (৯)। এই পাতায় বিভিন্ন রাসায়নিক ঔষধি যেমন ইমিপ্রামিন ও ডায়াজেপাম ইত্যাদির থেকে কোনো অংশে কম গুণ দেখা যায়না। থানকুনি পাতায় কিছু কিছু এনক্সিয়ালিটিক উপাদানও পাওয়া যায় (১০)। এছাড়া থানকুনি পাতা মনোএমাইন নিউরোট্রান্সমিটার যেমন সেরোটোনিন মাত্রা বাড়াতে সাহায্য করে যা সুখ ও মনে খুশির উৎপত্তি করে (১১)। এর ফলে বিষন্নতা কমে আসে।

  • রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করে: May Regulate Blood Pressure

হাইপারটেনশন বা উচ্চ রক্তচাপ রোধ করতে থানকুনি দারুণ কার্যকরী (১২)। এর ফলে রক্ত সঞ্চালন ও রক্তকণিকা উন্নত হয়। তবে হাইপারটেনশন বা উচ্চ রক্তচাপ হলে থানকুনি পাতা ব্যবহার করার আগে ডাক্তারের সাথে একবার পরামর্শ করে নেবেন।

  • পেটের আলসার রোধ করে: Treats Stomach Ulcers

থানকুনি পাতার সাহায্যে গ্যাস্ট্রিক বা আলসারের সমস্যা রোধ করা যায় (১৩)। এই পাতার এন্টি আলসার উপাদান বিভিন্ন রাসায়নিক ওষুধ যেমন ফ্যামটিডিন ও সোডিয়াম ভ্যালপোরেটের মতোই কার্যকরী। থানকুনি পাতায় রয়েছে গ্যাস্ট্রিক রোধ করার উপাদান যা আলসার প্রতিরোধ করতে সাহায্য করে (১৪)

  • প্রসারিত চিহ্ন দূর করে: May Help Reduce Stretch Marks

ত্বকে পোস্টপারেটিভ স্কার মার্ক রোধ করতে থানকুনি পাতা দারুণ কার্যকরী (১৫)। থানকুনি পাতায় স্যাপোনিন উপাদান ভরপুর। এর সাহায্যে ত্বক টানটান হয় ও প্রসারিত চিহ্ন দূর হয় (১৬)। গর্ভাবস্থার পর যেই প্রসারিত চিহ্ন হয়ে থাকে তা এই থানকুনি পাতার সাহায্যে রোধ করা যায়।

  • কাটা ছেড়া ও জখম দূর করা যায়: Can Accelerate Wound Healing

ত্বকে কাটা বা পুড়ে যাওয়ার দাগ কমাতে থানকুনি পাতা বেশ উপকারী। আজকাল নানারকমের ক্রিম থানকুনি পাতার রস থেকে তৈরী হয় যা ত্বকের এসব সমস্যা রোধ করে (১৭)। এই পাতায় রয়েছে এসিয়াটোকসাইড যা কোলাজেন বাড়িয়ে তুলে ঘা বা কাটা ছেড়া ও জখম সারিয়ে দেয় (১৮)

  • লিভারকে সুস্থ রাখে: Might Support Liver Health

লিভারকে নষ্ট হওয়া থেকে রোধ করে থানকুনি পাতা। এর সাহায্যে এন্টি অক্সিডেন্ট উৎপন্ন হয় যা ইনফ্লেমেশন কমিয়ে আনে (১৯)। কিন্তু কিছু কিছু ক্ষেত্রে বলা হয় যে অতিরিক্ত থানকুনি পাতার কারণে লিভারের ক্ষতি হতে পারে (২০)

  • ওজন কমাতে সাহায্য করে: Might Promote Weight Loss

যদিও এই সম্পর্কে খুব কমই তথ্য রয়েছে কিন্তু কিছু কিছু ক্ষেত্রে দেখা গিয়েছে যে থানকুনি পাতায় থাকা পুষ্টিকর উপাদানগুলি শরীরে ফ্যাট কমাতে সাহায্য করে যার ফলে আপনার অনায়াসে কম ক্যালোরি যুক্ত খাবার খাওয়ার অভ্যেস হয়ে যায় (২১)। তাই ওজন হ্রাস করতে যদি আপনি থানকুনি পাতা ব্যবফর করে থাকেন তাহলে অবশ্যই একবার ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে নেবেন।

থানকুনির পুষ্টিগত মান – Gotu Kola Nutritional Value in Bengali

নিচে থানকুনি পাতার পুষ্টিগত মান সম্পর্কে বিস্তারিত ভাবে পড়ে নিন:

১০০ গ্রাম থানকুনি পাতা
পুষ্টিগত মান
পুষ্টিকর উপাদানপরিমান%
এশিয়াটিক এসিড০.২৩৪ মিলিগ্রাম১-৮%
ম্যাডিক্যাসিক এসিড০.১৩৪ মিলিগ্রাম১-৮%
অসীয়াতকসাইড০.৪৩ মিলিগ্রাম১-৮%
এসিয়াতকসাইড এ০.২৫ মিলিগ্রাম১-৮%
এসিয়াতকসাইড বি০.১৫ মিলিগ্রাম১-৮%
অন্যান্য পুষ্টিকর উপাদান
ক্যালস্যাম১৭০ মিলিগ্রাম
ফসফরাস৩০ মিলিগ্রাম
আয়রন৩.১ মিলিগ্রাম
পটাসিয়াম৪১৪ মিলিগ্রাম
বিটা ক্যারোটিন৬.৫৮ মিলিগ্রাম
থায়ামিন০.১৫ মিলিগ্রাম
রিবোফ্ল্যাবিন১.১৪ মিলিগ্রাম
নিয়াসিন১.২ মিলিগ্রাম
এস্কর্বিক এসিড৪ মিলিগ্রাম

থানকুনি পাতার ব্যবহার – How to Use Gotu Kola in Bengali

থানকুনি পাতা আপনি দু ভাবে ব্যবহার করতে পারেন। আপনি এই পাতা থেকে রস বের করে পান করতে পারেন অথবা থানকুনি পাতার ট্যাবলেটও খেতে পারেন। থানকুনি পাতার ট্যাবলেট আপনি যেকোনো ওষুধের দোকানে পেতে পারেন। তবে কেনার আগে একবার ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে নিতে ভুলবেন না।

থানকুনি পাতার ক্ষতিকর দিক – Side Effects of Gotu Kola in Bengali

থানকুনি পাতায় যতই উপকারিতা থাকুক না কেন, কিছু কিছু ক্ষেত্রে এর কয়েকটি ক্ষতিকারক দিক দেখা গিয়েছে। তাই থানকুনি পাতা ব্যবহার করার আগে অবশ্যই এই জিনিসগুলি খেয়াল রাখবেন। বিস্তারিত ভাবে আলোচনা করা হল:

  • গর্ভাবস্থা ও স্তন্যপান করার সময় 

যদিও এমনি সময় থানকুনি পাতার রস আপনি অনায়াসে পান করতে পারেন, কিন্তু গর্ভাবস্থার সময় বা স্তন্যপান করানোর সময় থানকুনি পাতা ব্যবহার করা একেবারেই উচিত না। এতে ক্ষতি হতে পারে।

  • লিভারের সমস্যা

আগেই বলা হয়েছে যে কিছু কিছু ক্ষেত্রে প্রমাণিত হয়েছে যে থানকুনি পাতা লিভারের জন্যে ক্ষতিকারক হতে পারে। যদিও এই ব্যাপারে এখনও অনেক গবেষণা চলছে। তাই ডাক্তারের পরামর্শ অবশ্যই নিয়ে নেবেন।

  • সার্জারি বা অপারেশনের পর

কোনোরকম সার্জারি বা অপারেশনের পর থানকুনি পাতার রস বা ট্যাবলেট খেলে অতিরিক্ত নিদ্রাভাব ঘিরে ধরে। তাই সার্জারির কয়েক সপ্তাহ আগে বা পরে কোনো সময়ই এটি ব্যবহার করবেন না।

  • অন্যান্য এলার্জি

কিছু কিছু ব্যক্তির ক্ষেত্রে থানকুনি পাতার কারণে এলার্জি হতে পারে। এর ফলে ত্বকে চুলকানি, লালচে ভাব, শ্বাস কষ্টের সমস্যা, ঠোঁটের ফোলাভাব, জিভ, মুখ বা গলায় সমস্যা দেখা দিতে পারে। তাই আপনি যদি কোনোভাবে থানকুনি পাতা ব্যবহার করলে এই সমস্ত চিহ্ন দেখতে পান, তবে এটি ব্যবহার করা বন্ধ করে দিন।

  • কিছু ওষুধের সাথে ব্যবহার করবেন না

আপনি যদি নিচের কোনো রকম ওষুধ প্রতি দিন ব্যবহার করে থাকেন, তাহলে থানকুনি পাতার রস ক্ষতিকারক হতে পারে।

  • ঘুমের ওষুধ যেমন ক্লনোপিন, এটিভান, এম্বিয়ান, ইত্যাদি।
  • লিভারের ওষুধ যেমন টাইলেনল, এলডোমেল, কোর্দারণ, জোকোর, ডাইল্যান্টিন, ইত্যাদি।

তবে যাই হোক না কেন, থানকুনি পাতা হল একটি অত্যন্ত প্রয়োজনীয় ঔষধি গাছ যা বহু বছর ধরে নানা রকমভাবে প্রতিদিনের জীবনে উপকারিতা প্রদান করে। তবে, যেহেতু এটি বহু ঔষধি গুণ সমৃদ্ধ, তাই ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে তবেই এটি ব্যবহার করা উচিত। তাহলে আজ থেকেই প্রতিদিনের জীবনে থানকুনি পাতা ব্যবহার করা শুরু করছেন তো?

আমাদের এই পোস্ট কেমন লাগলো অবশ্যই জানান কমেন্টের মাধ্যমে। এছাড়াও যদি এই বিষয়ে আরো কোনো মন্তব্য থাকে সেটিও জানাতে ভুলবেন না।

Was this article helpful?
scorecardresearch