ত্বক থেকে চুল, রূপচর্চায় ভেসলিনের ব্যবহার এবং উপকারিতা | Vaseline Benefits and Uses in Bengali

by

এবছর দেরিতে হলেও শীতকাল প্রায় এসেই গেল। আর শীতকাল মানেই ত্বকে রুক্ষশুক্ষভাব। শীতকালে ত্বকের  রুক্ষভাব দূর করতে ম্যাজিকের মতো কাজ করে ভেসলিন বা পেট্রোলিয়াম জেলি। ত্বকের যত্ন নিতে এর জুড়ি মেলা ভার। রাতে শুতে যাওয়ার আগে  অনেকেরই হাতে-পায়ে ভেসলিন লাগানোর অভ্যস রয়েছে। কিন্তু আপনি কি জানেন ভেসলিন যেমন ত্বকের নানা সমস্যা সমাধান করে, তেমনই সাজগোজের নানান কাজে লাগে? ত্বকের পাশাপাশি এটি চুলের সৌন্দর্য বজায় রাখতেও দারুণ কার্যকরী। এছাড়াও নানা কাজে ভেসলিন ব্যবহার করতে পারেন। আমাদের আজকের প্রতিবেদনে রূপচর্চায় ভেসলিনের এক ডজন ব্যবহার এবং তার উপকারিতা সম্পর্কে আলোচনা করা হল।

ভেসলিন কী ?

ভেসলিন হল কতগুলি রাসায়নিক উপাদানের সমন্বয়ে তৈরি পেট্রোলিয়াম জেলি। এর প্রধান উপাদান হল হাইড্রোকার্বন, যা হাইড্রোজেন এবং কার্বনের যৌগ বা অণু। ভেসলিন ১৮৫৯ সালে পেনসিলভানিয়াতে উদ্ভাবিত হয়েছিল।

ভেসলিনের উপকারিতা

শীতকালে প্রায় সবার ঘরে ভেসলিন থাকে। কুনুইয়ের রুক্ষভাব, ঠোঁট ফাটা, পা ফাটা ইত্যাদি নানা সমস্যা দূর করতে এটি দারুণ কাজ করে। তবে শুধু ত্বকের যত্ন নয়, আজ আমরা জানবো ভেসলিনের কিছু অজানা ব্যবহার এবং তার উপকারিতা –

১. ঠোঁটের স্ক্রাব

প্রয়োজনীয় উপকরণ 

  • সামান্য চিনি
  • ভেসলিন

কীভাবে ব্যবহার করবেন 

  • একটি পাত্রে সামান্য চিনি এবং অল্প পরিমানে ভেসলিন নিয়ে একসঙ্গে মিশিয়ে নিন।
  • মিশ্রণটি ঠোঁটের উপর ভালো করে লাগিয়ে নিন।
  • আলতোভাবে কিছুক্ষণ ঘষে নিয়ে নরম কাপড় দিয়ে ঠোঁট মুছে ফেলুন।

উপকারিতা 

 নিয়মিত এই স্ক্রাব ব্যবহার করুন। দেখবেন আপনার ঠোঁট কেমন সুন্দর এবং কোমল হয়ে উঠেছে।

২. পা ফাটা দূর করে

প্রয়োজনীয় উপকরণ 

  • ভেসলিন

কীভাবে ব্যবহার করবেন 

  • রাতে শুতে যাওয়ার আগে হালকা গরম জল এবং সাবান দিয়ে ভালো করে পা পরিষ্কার করে নিন।
  • এরপর সামান্য ভেসলিন নিয়ে পায়ের ফাটায় লাগিয়ে নিন।
  • ভেসলিন ভালো করে মালিশ করে একজোড়া পরিষ্কার মোজা পরে ঘুমাতে যান।

উপকারিতা 

ভেসলিন পা ফাটা দূর করতে এবং পায়ের কোমলতা বজায় রাখে। এছাড়াও এটি আপনার পুরো শরীরকে কোমল এবং মসৃণ রাখতে সাহায্য করে

৩. হাতের রুক্ষতা দূর করে

প্রয়োজনীয় উপকরণ 

  • ভেসলিন

কীভাবে ব্যবহার করবেন 

  • রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে সামান্য ভেসনিল নিয়ে ভালোভাবে হাতে ও আঙুলে মালিশ করে নিন।
  • ভালো ফল পেতে ভেসলিন লাগানোর পর গ্লাভস পরে ঘুমান।

উপকারিতা  

রাতে ভেসলিন লাগান,সকালে উঠেই পার্থক্য বুঝতে পারবেন। আপনার হাত আগের থেকে কেমন নরম এবং কোমল হয়ে উঠেছে। ত্বকে একধরণের প্রোটিন থাকে, আদ্রতা কমে গেলে হাতের চামড়া তখন ফেটে যায়। ভেসলিন ত্বকে রুক্ষ হওয়া থেকে রক্ষা করে এবং মরা চামড়া মেরামত করতে সাহায্য করে।

৪. চুলের যত্নে ভেসলিন

প্রয়োজনীয় উপকরণ 

  • দু চামচ ভেসলিন
  • এক চামচ নারকেল তেল
  • দুটি ভিটামিন ই ক্যাপসুল

কীভাবে ব্যবহার করবেন 

  • প্রথমে একটি বাটিতে দু’চামচ ভেসলিন নিন।
  • তারপর অন্য একটি বাটিতে গরম জল নিয়ে তাতে ভেসলিনের বাটি বসিয়ে ভেসলিন গলিয়ে নিন।
  • ভেসলিনের মধ্যে নারকেল তেল এবং ভিটামিন ই ক্যাপসুল মেশান।
  • মিশ্রণটি ভালো করে চুলে লাগিয়ে নিন।
  • ৫ মিনিট হালকা হাতে ম্যাসাজ করুন। সারারাত এভাবে রেখে সকালে শ্যাম্পু করে চুল ধুয়ে ফেলুন।

উপকারিতা :

সপ্তাহে দু’দিন রাতে এই মিশ্রণটি ব্যবহার করুন। চুলের শুষ্কভাব দূর হবে। আপনার চুল হয়ে উঠবে ঝলমলে এবং মজবুত। সেইসঙ্গে চুলের ডগা ফাটার সমস্যাও দূর হবে।

৫. নকল আইল্যাশ রিমুভার

প্রয়োজনীয় উপকরণ 

  • ভেসলিন
  • তুলো

কীভাবে ব্যবহার করবেন :

  • সামান্য তুলোর মধ্যে ভেসলিন লাগিয়ে নিন এবং তারপর সেটা দিয়ে নকল আইল্যাশের উপর ঘষতে থাকুন।
  • আইল্যাশের আঁঠা কিছুক্ষণের মধ্যে নরম হবে, তারপর হালকা গরম জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

উপকারিতা 

এই উপায়ে সহজে নকল আইল্যাশ তুলে ফেলতে পারবেন কোনও রকম ক্ষয়ক্ষতি ছাড়ায়।

৬. লিপস্টিকের দাগ থেকে দাঁত বাচাতে

প্রয়োজনীয় উপকরণ  

  • ভেসলিন

কীভাবে ব্যবহার করবেন 

  • সামান্য ভেসলিন আঙুলে নিয়ে দাঁতে লাগিয়ে নিন।

উপকারিতা 

লিপস্টিক লাগাতে গিয়ে অনেকের দাঁতে লেগে যায়। যা দেখতে একেবারেই ভালো লাগে না। এবার থেকে লিপস্টিক পরার আগে অল্প ভেসলিন আঙুলে নিয়ে দাঁতে লাগিয়ে নিন। দেখবেন আর দাঁতে লিপস্টিক লাগবে না।

৭. ডাইপার র‍্যাশ রোধ করে

প্রয়োজনীয় উপকরণ 

  • ভেসলিন

কীভাবে ব্যবহার করবেন 

  • সামান্য ভেসলিন নিয়ে আলতো হাতে বাচ্চার নীচের অংশে লাগিয়ে নিন।

উপকারিতা 

ডাইপার র‍্যাশ বাচ্চাদের খুবই সাধারণ একটি সমস্যা। অন্য কোনও ক্রিমের বদলে ভেসলিন লাগাতে পারেন। খুব তাড়াতাড়ি ভালো ফল পাবেন কোনওরকম ভয়ের আশঙ্কা ছাড়া।

৮. চোখের মেকআপ রিমুভার

ভেসলিনের সাহায্যে সহজেই মুছে ফেলতে পারেন চোখের মেকআপ। তুলোতে সামান্য ভেসলিন লাগিয়ে কয়েকবার ঘষে নিলেই মেকআপ উঠে যাবে। তবে চোখে কোনওরকম জ্বালা এড়াতে তাড়াতাড়ি জল দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন।

৯. ত্বকের ক্যত নিরাময় করে

ছোটোখাটো কাটাছেঁড়া এবং পোড়ার জ্বালা যন্ত্রণা থেকে আরাম পেতে ভেসলিন লাগাতে পারেন। নিমেষে আরাম পাবেন।

১০. কানের ব্যথা দূর করে

অনেকসময় ভারী কানের দুল পরলে কানে ব্যথা লাগে। আপনারও যদি এই রকম হয় তাহলে সামান্য ভেসলিন নিয়ে কানে মালিশ করে নিন। ভারী কানের পরলেও আর ব্যথা লাগবে না।

১১. শেভিংয়ের পর ভেসলিন

শেভ করার পর ত্বক কেমন একটা খসখসে হয়ে যায়। ত্বক নরম ও মসৃণ রাখতে এবং খসখসে ভাব দূর করতে ভেসলিন ব্যবহার করতে পারেন।

১২. কনুইয়ের চামড়া নরম রাখে

ঘষাঘষির কারণে কনুইয়ের চামড়া রুক্ষ হয়, শীতকালে এর অবস্থা আরও খারাপ হয়ে ওঠে। নিয়মিত ভেসলিনের ব্যবহার করলে ত্বকের কোমলতা ফিরে আসে।

ভেসলিন ব্যবহারের আরও কিছু টিপস

  • সানবার্ন বা ট্যান থেকে ত্বককে সুরক্ষিত রাখতে ভেসলিন ব্যবহার করুন।
  • বডি স্প্রের সুগন্ধ দীর্ঘক্ষণ ধরে রাখতে আগে একটু ভেসলিন লাগিয়ে নিন। সুগন্ধ অনেকক্ষণ থাকবে।
  • অনেকের নোখ বার বার ভেঙে যায়, রুক্ষ দেখায়। এমনটা হলে নিয়মিত নোখের উপর ভেসলিন লাগান।
  • চোখের পাশাপাশি মুখের মেকআপ তুলে ফেলতে খুব ভালো রিমুভার হিসেবে কাজ করে ভেসলিন।
  • ম্যাট লিপস্টিক গুলো একটু বেশি উজ্জ্বলতা পেতে লিপস্টিকের উপর ভেসলিন লাগিয়ে নিন।
  • স্নানের পর ত্বক ময়েশ্চারাইজ করতে ভেসলিন ব্যবহার করুন।
  • এটি একজিমা কমাতে সাহায্য করে।
  • ছোট্ট শিশুর ত্বকের যত্ন নিতেও ভেসলিন ব্যবহার করতে পারেন।
  • অনেকসময় নতুন জুতো পরলে পা ফোসকা পড়ে। সেক্ষেত্রে আগে পায়ে সামান্য ভেসলিন লাগিয়ে নিন, তারপর জুতো পরুন।

ভেসলিনের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া

ভেসলিনের সম্ভাব্য কিছু পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া রয়েছে, তবে তা সবসময় নাও হতে পারে। কিছু পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া মারাত্মক হতে পারে কিন্তু তা বিরল। নিম্নলিখিত উপসর্গগুলি দেখা দিলে অবশ্যই ডাক্তারের কাছে যান –

  • ভেসলিনের তেমন কোনও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া না দেখা দিলেও যদি এর থেকে ত্বকে কোনও রকম অস্বস্তি দেখা দিলে অবিলম্বে ডাক্তারের পরামর্শ নিন।
  • এর থেকে ত্বকে এলার্জির সম্ভাবনা কম থাকলেও একেবারে উপেক্ষা করা যায় না।
  • আপনার ত্বকে যদি র‍্যাশ, চুলকানি ইত্যাদি সমস্যা দেখা দেয় তাহলে অবশ্যই ডাক্তারের কাছে যান।
  • এর ব্যবহারে মুখে, গলায় ফোলা ভাব দেখা দিতে পারে।
  • অনেকসময় এর থেকে মাথা ঘোরায়, নিশ্বাস নিতে কষ্ট হয়।
  • বমি বমি ভাব বা বমি হতে পারে।

প্রায়শই জিজ্ঞাস্য প্রশ্নাবলী

মুখে ভেসলিন লাগানো কি ভালো?

উ: ত্বকের আদ্রতা বজায় ভেসলিন দারুণ উপকারী। আপনি চাইলে মুখেও ভেসলিন লাগাতে পারেন। তাতে কোনও ক্ষতি হবে না। যদি ত্বকে কোনও সমস্যাও থেকে থাকে তাহলেও নিশ্চিন্তে এটি ব্যবহার করতে পারেন।

ভেসলিন খাওয়া কি স্বাস্থ্যকর?

না, কোনওভাবেই ভেসলিন খাবেন না। তাতে ক্ষতি হতে পারে। প্যাকেটের উপর উল্লিখিত নিয়মাবলী অনুযায়ী এর ব্যবহার করুন।

 আপনার ঠোঁটের জন্য ভেসলিন খারাপ কেন?

অনেকে বাইরে বেড়নোর আগে ঠোঁটে ভেসলিন লাগান। তাতে আপনার ঠোঁট আরও শুষ্ক হয়ে যেতে পারে।

ভেসলিন আপনার চোখের আইল্যাশের জন্য কি খারাপ?

চোখের চারপাশে এবং আইলাশের উপর ভেসলিন লাগাতে পারেন, এটি নিরাপদ।

ভেসলিনের মধ্যে কি রোগ নিরাময়ের বৈশিষ্ট্য রয়েছে?

পরীক্ষায় দেখা গেছে ভেসলিন পোড়া এবং ত্বকের ক্ষত সারিয়ে তুলতে সাহায্য করে। এর প্রধান উপাদান পেট্রোলিয়াম ত্বকের ক্ষত সারিয়ে তোলে এবং ত্বকের আদ্রতা বজায় রাখে।

ভেসলিন কি ভ্রুয়ের জন্য ভালো?

আপনি আপনার চোখ এবং আইল্যাশে নির্দিধায় ভেসলিন ব্যবহার করতে পারেন, এটি নিরাপদ। এর মধ্যে উপস্থিত খনিজ তেল ভ্রু জোড়া উজ্জ্বল এবং নরম রাখতেও সাহায্য করে।

ভেসলিন কি চুলের জন্য ভালো?

হ্যাঁ, ভেসলিন চুলের বৃদ্ধিতে কোনও সাহায্য না করলেও চুলের যত্নে এর উপকারিতা রয়েছে। এটি চুলের ডগা ফাটা প্রতিরোধ করে। এটি চুলের আদ্রতা ধরে রাখতে সাহায্য করে।

ভ্রুয়ের উপর ভেসলিন লাগালে কী হয়?

নিয়মিত ভ্রুয়ের উপর ভেসলিন লাগাতে পারেন। তাতে আপনার ভ্রু জোড়া আরও নরম এবং উজ্জ্বল হবে।

ভেসলিন ত্বকের গভীরে পৌঁছাতে কত সময় নেয়?

ভেসলিন খুব তাড়াতাড়ি ত্বকে মিলিয়ে যায়। মাত্র ২৬ সেকেন্ডের মধ্যে এটি ত্বকের গভীরে পৌঁছায়।

Was this article helpful?
scorecardresearch