হোয়াইট হেডস দূর করার ঘরোয়া উপায় – Home Remedies for Whiteheads in Bengali

by

Nব্ল্যাক হেডস তো ছিলই, তার উপর আবার হোয়াইট হেডস! আর এসবের কারণে ত্বকের সৌন্দর্য যেন হারাতে বসেতে। আমরা কমবেশি অনেকেই হোয়াইট হেডসের সমস্যার সঙ্গে পরিচিত। কারও ক্ষেত্রে এটি অল্প সময়ের জন্য দেখা দেয়, কারও আবার সারা জীবন ধরে ভোগান্তির কারণ হয়ে ওঠে। আমাদের এই প্রতিবেদনে রইল এমনই কিছু ঘরোয়া উপায়, যা খুব সহজে হোয়াইট হেডস দূর করতে সাহায্য করে। সেই সঙ্গে আপনার ত্বকের সৌন্দর্য ফিরিয়ে আনে।

হোয়াইট হেডস কী

এটি হল এক ধরনের ব্রণ। ত্বক দ্বারা নির্গত তেল বা মৃত কোষ দিয়ে যখন ত্বকের রন্ধ্র ব্লক হয়ে যায়, তখন হোয়াইট হেডস গঠিত হয়। তৈলাক্ত ত্বকে এই সমস্যা বেশি দেখা দেয়। নাক, কপাল এবং গলার আশেপাশে সাদা ছোপ ছোপ দেখা যায়। অনেক সময় পিঠেও এই সমস্যা দেখা দেয়। মুখে তৈলাক্তভাব এবং দূষণ হল হোয়াইট হেডসের অন্যতম কারণ। তাছাড়া মানসিক অশান্তি, ধূমপান এবং পরিচ্ছন্নতার অভাব ইত্য়াদির কারণেও হোয়াইট হেডসের সমস্যা দেখা দিতে পারে। ঘরোয়া উপায়ে এই সমস্যা সমাধান করা সম্ভব। রইল এমনই কিছু ঘরোয়া টোককা যা হোয়াইট হেডস দূর করতে দারুণ কার্যকরী।

হোয়াইট হেডস হওয়ার কারণ

সাধারণভাবে ত্বকের লোমকূপ বন্ধ হয়ে যাওয়ার কারণে হোয়াইট হেডসের সমস্যা হাজির হয়। ত্বকের রন্ধ্র ব্লক হয়ে যাওয়ার পিছনে যে কারণগুলি রয়েছে সেগুলি হল –

  • ত্বকের অতিরিক্ত তৈলাক্তভাব
  • বয়ঃসন্ধি, গর্ভাবস্থা এবং ঋতুস্রাবের সময় হরমোনাল পরিবর্তনের কারণে
  • গর্ভনিরোধক পিল খেলে
  • আবহাওয়ায় অতিরিক্ত আদ্রতা
  • ঘাম
  • ত্বকে ব্যবহৃত নির্দিষ্ট কোনও কসমেটিক্সের কারণে
  • তৈলাক্ত এবং চর্বিযুক্ত খাবার খাওয়া
  • জিনগত কারণেও হতে পারে।

এর মধ্যে কিছু জিনিস আমরা চাইলে আমাদের নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারি। যদিও কিছু বিষয় রয়েছে যা আমাদের নিয়ন্ত্রণের বাইরে। যতটা সম্ভব এই কারণগুলি এড়িয়ে চলার চেষ্টা করুন, হোয়াইট হেডসের সমস্যা দূরে থাকবে।

এবার জেনে নিন ঘরোয়া উপায়ে কীভাবে হোয়াইট হেডস দূর করতে পারবেন।

হোয়াইট হেডস প্রতিকারের ঘরোয়া উপায়

১. বেকিং সোডা

কী কী উপকরণ প্রয়োজন ?
  • ২-৩ চামচ বেকিং সোডা
  • জল
কীভাবে ব্যবহার করবেন ?
  • বেকিং সোডা এবং জল একসঙ্গে মিশিয়ে ঘন পেস্ট তৈরি করে মুখে লাগিয়ে নিন।
  • ১৫-২০ মিনিট মিশ্রণটি মুখে লাগিয়ে রাখুন।
  • হালকা গরম জল দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন।
উপকারিতা

বেকিং সোডা ত্বকের গভীরে জমে থাকা ময়লা বের করে আনতে সাহায্য করে। ত্বকের রন্ধ্র ব্লক হতে দেয় না। ত্বকে পি এইচ-এর ভারসাম্য বজায় রাখে। হোয়াইট হেডস দূর করে ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ায় (১) (২)

২. টি ট্রি অয়েল

কী কী উপকরণ প্রয়োজন ?
  • টি ট্রি অয়েল
  • তুলো
কীভাবে ব্যবহার করবেন ?

এই এসেনসিয়াল অয়েলে সামান্য তুলো ভিজিয়ে যেখানে হোয়াইট হেডস হয়েছে সেইসব জায়গায় লাগিয়ে নিন। কিন্তু আপনার ত্বক যদি সেনসিটিভ হয় তাহলে তেলে ভেজানোর পর তুলোটি একবার জলে ডুবিয়ে নিন, তারপর ত্বকে লাগান।

উপকারিতা

এই তেলের মধ্যে উপস্থিত অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল উপাদান ত্বকের ওপরের হেয়ার ফলিকসে ব্যাকটেরিয়া জমতে দেয় না। হোয়াইড হেডস রোধ করে (৩)

৩. রসুন

কী কী উপকরণ প্রয়োজন ?
  • ২-৩ কোয়া রসুন
  • সামান্য জল
  • গোলাপ জল
  • তুলো
কীভাবে ব্যবহার করবেন ?
  •  রসুন থেতো করে জলের মধ্যে দিয়ে কিছুক্ষণ রেখে দিন।
  • রসুন ভেজানো জল হোয়াইট হেডসের উপর লাগিয়ে ৪-৫ মিনিট রেখে দিন।
  • রোজ ওয়াটার বা গোলাপ জলে তুলো ভিজিয়ে মুখ পরিষ্কার করে নিন।
উপকারিতা

রসুন হল অন্যতম ন্যাচরাল অ্যান্টিসেপটিক যা ব্যাকটেরিয়ার সঙ্গে লড়াই করে। হোয়াইট হেডস প্রতিরোধ করে (৪)

৪. ডিমের সাদা অংশ

কী কী উপকরণ প্রয়োজন ?
  • একটি ডিমের সাদা অংশ
  • একচামচ মধু
কীভাবে ব্যবহার করবেন ?
  • ডিমের কুসুম এবং সাদা অংশ আলাদা করে নিন। তারপর সাদা অংশ ভালো করে ফেটিয়ে নিন।
  • মধু যোগ করে মিশ্রণটি তৈরি করে নিন।
  • এই ফেসপ্যাকটি মুখ ও ঘাড়ে লাগিয়ে নিন। ত্বককে টানটান করে তুলতে এটি দারুণ কার্যকরী।
  • ১৫ মিনিট লাগিয়ে রাখার পর জল দিয়ে মুখ ধুয়ে নিন।
উপকারিতা

ডিমের মধ্যে উপস্থিত প্রোটিন ত্বককে টানটান করে তোলে। সেইসঙ্গে হোয়াইট হেডস দূর করে। সপ্তাহে দু’দিন এই ফেসপ্যাক ব্যবহার করতে পারেন (৫)

৫. আলুর রস

কী কী উপকরণ প্রয়োজন ?
  • একটি আলু
  • কটন বল
কীভাবে ব্যবহার করবেন ?
  • একটি আলু গ্রেড করে নিন এবং এর থেকে রস বের করে নিন।
  • কটন বলের সাহায্যে রস মুখে লাগিয়ে নিন।
  • ১০-১২ মিনিট রাখার পর জল দিয়ে মুখ ধুয়ে নিন।
উপকারিতা

সপ্তাহে অন্তত একবার এর ব্যবহার দারুণ কার্যকরী। আলুররস কেবলমাত্র ব্রণর সমস্যা দূর করে না, হোয়াইট হেডসও কম করে। ত্বককে সুন্দর করে তোলে (৬)

৬. অ্যাপেল সিডার ভিনিগার

কী কী উপকরণ প্রয়োজন ?
  • কয়েক ফোঁটা অ্যাপেল সিডার ভিনিগার
  • কটন বল
কীভাবে ব্যবহার করবেন ?
  • কটন বলে সামান্য অ্যাপেল সিডার ভিনিগার নিয়ে ত্বকে যেখানে হোয়াইট হেডস হয়েছে লাগিয়ে নিন।
  • কিছুক্ষণ অপেক্ষা করুন এবং ভালোভাবে শুকিয়ে গেলে জল দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন।
উপকারিতা

এর মধ্যে উপস্থিত অ্যাসিডিক উপাদান হোয়াইট হেডস দূর করে। ব্যকটেরিয়াকে ধ্বংস করে, ত্বকের রন্ধ্র ব্লক হতে দেয় না (৭)

৭. হলুদ

কী কী উপকরণ প্রয়োজন ?
  • ১/২ চামচ হলুদ গুঁড়ো
  • জল অথবা মধু
কীভাবে ব্যবহার করবেন ?
  • জল বা মধু মিশিয়ে হলুদ গুঁড়োর একটি ঘন পেস্ট তৈরি করে হোয়াইট হেডসের উপর লাগিয়ে নিন।
  • ১৫-২০ মিনিট রেখে মুখ ধুয়ে ফেলুন।
উপকারিতা

সপ্তাহে একবার কিংবা দু’বার এই ফেসপ্যাক ব্যবহারে ভালো ফল পাবেন।  এর অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল উপদান খুব তাড়াতাড়ি হোয়াইট হেডস দূর করে (৮)

৮. গ্রিণ টি

কী কী উপকরণ প্রয়োজন ?
  • একটি ব্যবহৃত গ্রিণ টি ব্যাগ
কীভাবে ব্যবহার করবেন ?

টি ব্যাগটি হোয়াইট হেডসের উপর ১০-১৫ মিনিট রেখে দিন।

উপকারিতা

দিনে দুই থেকে তিন বার এর ব্যবহারে হোয়াইট হেডসের হাত থেকে মুক্তি পেতে পারেন। এর মধ্যে প্রচুর অ্যান্টি অক্সিডেন্ট রয়েছে যা ত্বকের সমস্যা রোধ করে (৯)

৯. মধু

কী কী উপকরণ প্রয়োজন ?
  • একচামচ মধু
কীভাবে ব্যবহার করবেন ?
  • মধু হালকা গরম করে ত্বকের উপর যেখানে হোয়াইট হেডস রয়েছে সেখানে লাগিয়ে নিন।
  • ২০ মিনিট রেখে দেওয়ার পর জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।
উপকারিতা

হোয়াইট হেডস দূর করতে মধুর অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল উপাদান দারুণ কার্যকরী।  এছাড়াও মধু ত্বককে কোমল এবং সুন্দর করে তোলে (১০)

১০. অ্যলো ভেরা

কী কী উপকরণ প্রয়োজন ?
  • অ্যালোভিরা গাছে একটি পাতা
  • এক চামচ লেবুর রস
কীভাবে ব্যবহার করবেন ?
  • অ্যালো পাতা থেকে একচামচ ফ্রেস অ্যালো ভেরা জেল বের করে ভালো করে ম্যাশ করে নিন।
  • লেবুর রস যোগ করে মিশ্রণটি ভালো করে মিশিয়ে নিন।
  • যেখানে হোয়াইট হেডস হয়েছে সেইসব জায়গায় ৩-৪ মিনিট ধরে মালিশ করুন।
  • মিনিট দশেক রাখার পর জল দিয়ে মুখ ধুয়ে নিন।
উপকারিতা

সপ্তাহে দু’বার এর ব্যবহার ত্বককে হোয়াইট হেডস মুক্ত রাখতে সাহায্য করে ।

১১. ক্লে মাস্ক

কী কী উপকরণ প্রয়োজন ?
  • ১-২ চামচ বেনটোনাইট ক্লে
  • ১ চামচ মধু
  • জল
কীভাবে ব্যবহার করবেন ?
  • সব উপকরণগুলি একসঙ্গে মিশিয়ে ঘন পেস্ট তৈরি করে নিন।
  • যেখানে হোয়াইট হেডস দেখা দিয়েছে সেইসব জায়গায় মিশ্রণটি লাগিয়ে নিন।
  • ফেসপ্যাকটি শুকিয়ে এলে হালকা গরম জল দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন।
উপকারিতা

এটি ত্বক রন্ধ্র থেকে ময়লা এবং অতিরিক্ত তেল বের করে আনে। হোয়াইট হেডস হতে দেয় না ।

১২. নারকেল তেল

কী কী উপকরণ প্রয়োজন ?
  • নারকেল তেল (অরগ্যানিক ভার্জিন কোকোনাট অয়েল)
কীভাবে ব্যবহার করবেন ?
  • ১-২ ফোঁটা তেল আঙুলে নিয়ে হোয়াইট হেডসের উপর মালিশ করে নিন।
  • তেল লাগিয়ে কিছুক্ষণ অপেক্ষা করুন।
উপকারিতা 

রোজ রাতে ঘুমোতে যাওয়ার আগে এটি ব্যবহার করুন। নারকেল তেল হোয়াইট হেডস রোধ করে। ত্বককে পরিষ্কার এবং ময়েশ্চারাইজ করে।

১৩. গোলাপ জল

কী কী উপকরণ প্রয়োজন ?
  • একচামচ গোলাপ জল
  • এচচামচ লেবুর রস
  • কটন বল
কীভাবে ব্যবহার করবেন ?
  • গোলাপ জল এবং লেবুর রস একসঙ্গে মিশিয়ে নিন।
  • কটন বলের সাহায্যে মিশ্রণটি ত্বকে লাগিয়ে ১০-১২মিনিট অপেক্ষা করুন।
  • তারপর জল দিয়ে মুখ ধুয়ে নিন।
উপকারিতা

একদিন অন্তর অন্তর এর ব্যবহার করতে পারেন। ত্বক পরিষ্কার রাখতে লেবুর রস দারুণ কার্যকরী, অন্যদিকে গোলাপ জল হোয়াইট হেডস দবর করে। ত্বকের তারুণ্য ফিরিয়ে আনে এবং সুস্বাস্থ্য বজায় রাখে ।

১৪. সুগার স্ক্রাব

কী কী উপকরণ প্রয়োজন ?
  • একচামচ চিনি
  • একচামচ মধু
  • কয়েক ফোঁটা লেবুর রস
কীভাবে ব্যবহার করবেন ?
  • সব উপাদানগুলি একসঙ্গে মিশিয়ে ফেসপ্যাক তৈরি করে ত্বকে ভালো করে ম্যাসাজ করে নিন।
  • মিশ্রণটি কিছুক্ষণ রাখার পর হালকা গরম জল দিয়ে মুখ ধুয়ে নিন।
উপকারিতা

সপ্তাহে অন্তত দু’দিন এই স্ক্রাব ব্যবহারে ত্বক হোয়াইট হেডস মুক্ত হবে এবং ত্বকের ডেডসেলও পরিষ্কার হয়ে যাবে।

১৫. স্টিম

কী কী উপকরণ প্রয়োজন ?
  • গরম জল
  • একটি তোয়ালে
কীভাবে ব্যবহার করবেন ?
  • একটি পাত্রে গরম জল নিন এবং তোয়ালে দিয়ে মুখ ও মাথা জড়িয়ে ভাব নিন।
  • ৫-৮ মিনিট একইরকম ভাবে ভাপ নিতে থাকুন।
উপকারিতা

গরম ভাপ ত্বকের লোমকূপের মুখ খুলে দেয় এবং জমে থাকা ময়লা পরিষ্কার করে। নিয়মিত ভাপ নিলে খুব তাড়াতাড়ি হোয়াইট হেডসের সমস্যা থেকে মুক্তি পাবেন ।

১৬. টুথপেস্ট

কী কী উপকরণ প্রয়োজন ?
  • টুথপেস্ট
কীভাবে ব্যবহার করবেন ?
  • সামান্য টুথপেস্ট নিয়ে হোয়াইট হেডসের উপর লাগিয়ে নিন।
  • কিছুক্ষণ রাখার জল দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন।
উপকারিতা

প্রত্যেকদিন অথবা দু’দিন অন্তর এটি ব্যবহার করুন। হোয়াইট হেডস শুকিয়ে দেয় এবং ত্বককে হোয়াইট হেডস মুক্ত করে টুথপেস্ট।

হোটাইট হেডস প্রতিরোধ করার আরও কিছু জরুরি টিপস

১. যে কোনও ত্বকের সমস্যা থেকে দূরে থাকতে প্রচুর পরিমাণে জল খান। সারাদিনে অন্তত ৩-৪ লিটার জল খাওয়া দরকার।

২. বেশি তেল মশলাযুক্ত খাবার, জাঙ্ক ফুড এড়িয়ে চলার চেষ্টা করুন।

৩. প্যাকেটজাত খাবারের বদলে বাড়িতে তৈরি ফলের রস, স্যালাড এবং হালকা সুপ খান, হোয়াইট হেডস দূরে থাকবে।

৪.  নিয়মিত ত্বকের যত্ন প্রয়োজন। দিনে অন্তত একবার ত্বকের ক্লিন্জিং, টোনিং এবং ময়েশ্চারাইজিং করুন।

৫. হোয়াইট হেডস কখনই নোখ দিয়ে খোটাখুটি বা চাপ দিয়ে বের করতে যাবেন না। তাতে হিতে বিপরীত হতে পারে।

৬. মেকআপ ব্যবহার করতেই পারেন। তবে রাতে শুতে যাওয়ার আগে অবশ্যই মেকআপ তুলে ফেলুন। নয়তো এর থেকে হোয়াইট হেডস জন্ম নিতে পারে।

References

baking soda anti-inflammatory –

https://books.google.co.in/books?id=14umOowYuhMC&pg=PA618&dq=baking+soda+anti-inflammatory&hl=en&sa=X&ved=0ahUKEwj8osfm3ujPAhXCsI8KHZjyBmUQ6AEINjAD#v=onepage&q=baking%20soda%20anti-inflammatory&f=false

baking soda for whiteheads

https://books.google.co.in/books?id=BCTXAgAAQBAJ&pg=PT21&dq=baking+soda+for+whiteheads&hl=en&sa=X&ved=0ahUKEwjd0_zAsqvUAhUVSY8KHRdoCREQ6AEIITAA#v=onepage&q=baking%20soda%20for%20whiteheads&f=false

Melaleuca alternifolia (Tea Tree) Oil: a Review of Antimicrobial and Other Medicinal Properties

https://www.ncbi.nlm.nih.gov/pmc/articles/PMC1360273/

garlic for blemishes

https://books.google.co.in/books?id=FGlW1NnsZWIC&pg=PA314&dq=garlic+for+blemishes&hl=en&sa=X&ved=0ahUKEwiE-7CgmcHSAhXHgbwKHfIQDd8Q6AEIHzAB#v=onepage&q=garlic%20for%20blemishes&f=false

egg white for pimples –

https://books.google.co.in/books?id=wKWSCgAAQBAJ&pg=PA14&dq=egg+white+for+pimples&hl=en&sa=X&ved=0ahUKEwiUxoip7ejOAhVKqo8KHYv7DtIQ6AEIRTAE#v=onepage&q=egg%20white%20for%20pimples&f=false

potato removes dark spots on skin –

https://books.google.co.in/books?id=XGS-CQAAQBAJ&pg=PA30&dq=potato+removes+dark+spots+on+skin&hl=en&sa=X&ved=0ahUKEwjz5dazis_NAhVBuo8KHV_xDZ0Q6AEIKTAA#v=onepage&q=potato%20removes%20dark%20spots%20on%20skin&f=false

apple cider vinegar exfoliant –

https://books.google.co.in/books?id=EhSSzT2SP2wC&pg=PA116&dq=apple+cider+vinegar+exfoliant&hl=en&sa=X&ved=0ahUKEwi2g5aAranNAhWKuI8KHcJ3AGYQ6AEIKTAA#v=onepage&q=apple%20cider%20vinegar%20exfoliant&f=false

Chapter 13Turmeric, the Golden Spice –

https://www.ncbi.nlm.nih.gov/books/NBK92752/

Green tea: A boon for periodontal and general health –

https://www.ncbi.nlm.nih.gov/pmc/articles/PMC3459493/

Medicinal and cosmetic uses of Bee’s Honey – A review –

https://www.ncbi.nlm.nih.gov/pmc/articles/PMC3611628/

Was this article helpful?
scorecardresearch