পয়লা বৈশাখ স্পেশাল : খাঁটি বাঙালিয়ানায় ভরপুর পাঁচটি জিভে জল আনা রেসিপি


by Sruti Bhattacharjee

আগামীকালই বাঙালির পয়লা বৈশাখ। আর বাঙালির উৎসবে ভুরিভোজ না হলে চলে নাকি ? বাংলা নববর্ষ মানেই হরেকরকম জমকালো মেনু। কিন্তু আবার করোনার প্রকোপ দিন দিন বাড়ছে, সবার কপালে চিন্তার ভাঁজ। তাই আমাদের কাছে বাইরে গিয়ে লাঞ্চ বা ডিনার করাটা লাস্ট অপশন। তাই বাড়িতেই জমিয়ে হয়ে যাক খাওয়া দাওয়া! এতে মনও ভরবে ও তার পাশাপাশি সাবধানতাও মেনে চলা যাবে। তাই নিরামিষ থেকে আমিষ কিছু চেনা অচেনা রেসিপির সন্ধান দেব আমরা, যা বাঙালিয়ানায় পরিপূর্ণ।

তাহলে শুরু করা যাক।

১. চিংড়ি দিয়ে লালশাক


ওপরের ছবিটি কি লোভনীয় না ?

উপকরণ :

  • শাক ১ আঁটি
  • চিংড়ি মাছ ২০০ গ্রাম ( মাঝারি আকারের )
  • আলু ১টি (ছোট করে কাটা )
  • নারকেল কোরা ৩ টেবিল চামচ
  • চীনাবাদাম ১০-১২টা
  • কাঁচালঙ্কা কুঁচি স্বাদমতো
  • বড়ি ৫টা
  • হলুদ ১/২ চা চামচ
  • রসুন কুচি ৪ কোয়া
  • নুন স্বাদমতো
  • চিনি
  • সর্ষের তেল।

প্রণালী :

কড়াইতে সর্ষের তেল গরম করে বাদাম ভেজে তুলে নিন। ওই তেলে বড়ি ভেজে একটু গুঁড়ো করে রাখতে হবে। বাকি তেলে আলু ভেজে তুলে নিয়ে চিংড়ি মাছ অল্প ভেজে তুলতে হবে। এরপর কড়াইতে আবার একটু তেল দিয়ে কালো জিরে ফোড়ন দিন। তাতে রসুন কুচি দিয়ে একটু ভেজে নিন। তারপর নারকেল কোরা দিয়ে একটু নেড়ে শাক দিন। নুন, চিনি ও হলুদ দিয়ে একটু ঢাকা দিয়ে দিন। শাকের থেকে যে জল বেরবে সেটা কমে এলে তাতে ভাজা আলু, বাদাম এবং ভেজে রাখা চিংড়ি মাছ মিশিয়ে নাড়তে হবে। ভাজা ভাজা হলে বড়িগুঁড়ো ছড়িয়ে নামাতে হবে।

২. জাফরানি রাইস বা পোলাও


উপকরণ :

  • দেরাদুন রাইস ৩ কাপ
  • জাফরান ১ চা চামচ
  • কাজুবাদাম ১০টা
  • কিসমিস ১০টা
  • আমন্ড ১০টা
  • খেজুর ৪টে
  • জিরে ১/২ চা চামচ
  • দুধ ১/২ কাপ
  • নুন স্বাদমতো
  • চিনি স্বাদমতো
  • ঘি ৩ টেবিল চামচ
  • তেজপাতা ১টি
  • গোলমরিচ গুঁড়ো ১চা চামচ।

প্রণালী :

১/২ কাপ গরম দুধে জাফরান ভিজিয়ে রাখতে হবে। কড়াইয়ে ঘি গরম করে তার মধ্যে তেজপাতা আর জিরে ফোড়ন দিয়ে কাজুবাদাম, কিসমিস, আমন্ড ও খেজুর হালকা করে ভেজে নিতে হবে। এর মধ্যে ধুয়ে জল ঝরিয়ে রাখা চাল দিয়ে নুন, চিনি, গোলমরিচের গুঁড়ো দিয়ে নাড়তে হবে। তারপর ছয় কাপ গরম জল দিয়ে আধ ঘন্টা ঢাকা দিয়ে রেখে দিলেই তৈরী জাফরানি রাইস।

৩.লাউ পাতায় ভাপা ইলিশ মাছ


উপকরণ :

  • ইলিশ মাছ ৫পিস
  • লাউপাতা ৫টা
  • নারকেল কোরা ১/২ কাপ
  • সর্ষে গুঁড়ো ২ টেবিল চামচ
  • পোস্ত বাটা ১ টেবিল চামচ
  • কাঁচালঙ্কা চেরা ৫টা
  • সর্ষের তেল ২ টেবিল চামচ
  • নুন স্বাদমতো
  • চাল ২ কাপ।

প্রণালী :

একটি পাত্রে চাল ধুয়ে নিন। এক ঘন্টা ভিজিয়ে রাখুন। তারপর ভাত রান্না করে নিন। একটি বাটিতে নারকেল কোরা, পোস্ত বাটা, সর্ষের গুঁড়ো, স্বাদমতো নুন, সর্ষের তেল একসঙ্গে মিশিয়ে নিন। এর মধ্যে ইলিশ মাছগুলো দিয়ে দু’পাশ ভালো করে মশলা মাখিয়ে নিন। ১০ থেকে ১৫ মিনিট ঢাকা দিয়ে রেখে দিন। এরপর লাউপাতাগুলো পরিষ্কার করে ধুয়ে এক একটি লাউপাতার ভিতরে একটি করে মশলা সহ মাছ আর একটা করে কাঁচালঙ্কা দিয়ে তা মুড়ে সুতো দিয়ে বেঁধে দিন। ভাত যখন প্রায় হয়ে আসবে, নামানোর পাঁচ মিনিট আগে লাউপাতায় মোড়া মাছগুলো ভাতের মধ্যে দিয়ে দিন। পাঁচ মিনিট পর ভাত উপুড় করে দিন। গরম ভাতের ভিতর মাছগুলো ১৫মিনিট রেখে বার করে নিন। গরম ভাতের সঙ্গে পরিবেশন করুন, পয়লা বৈশাখের লাঞ্চ জমে যাবে।

৪. মাটন কারি

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Tanay (@tanay.chaki)


উপকরণ :

  • মাটন ৫০০গ্রাম
  • ছাঁচি পেয়াঁজ ৬টা
  • চিনে বাদাম ১ টেবিল চামচ
  • গোলমরিচ ১ টেবিল চামচ
  • পেয়াঁজ কুচি করে কাটা ২টো
  • রসুন বাটা ১ চা চামচ
  • আদাবাটা ১চা চামচ
  • টোম্যাটো কুচি ১টি
  • অল্প লঙ্কার গুঁড়ো
  • হলুদ ১/২ চা চামচ
  • নুন ও চিনি স্বাদমতো
  • সর্ষের তেল আন্দাজমতো।

প্রণালী

কড়াইয়ে ১ চামচ সর্ষের তেল গরম করে ছাঁচি পেয়াঁজ, চিনে বাদাম, গোল মরিচ এবং দুটি কাশ্মীরি লঙ্কা ভেজে নিন। তারপর তা মিক্সিতে ব্লেন্ড করে একটি পেস্ট বানিয়ে নিন। আবার ওই কড়াইয়ে তেল গরম হলে জিরে ফোড়ন দিন। পেয়াঁজ কুচি হালকা বাদামি করে ভেজে নিয়ে তাতে টোম্যাটো কুচি দিয়ে ভেজে নিন। একটু নরম হয়ে এলে তার মধ্যে বানানো মশলার পেস্ট, মাটন, নুন, সামান্য চিনি দিয়ে দশ মিনিট কষিয়ে প্রেশার কুকারের মুখ বন্ধ করে পাঁচটি সিটি দিন। তারপর পনেরো মিনিট ওইভাবে রেখে দেওয়ার পর ঢাকা খুলে পরিবেশন করুন মাটন কারি। ওপরে যে জাফরানি রাইসের রেসিপি দেওয়া হয়েছে, তার সঙ্গে দারুন লাগবে এই মাটন কারি।

আমরা বাঙালিরা আলু খেতে বেশ ভালোবাসি, তাই এই রেসিপিটিতে আলু দিতে চাইলে দিতেই পারেন।

৫. মটর তোপসে


উপকরণ :

  • মটর ডাল ১/২ কাপ ( ৬ ঘন্টা ভিজিয়ে জল ঝরিয়ে তুলে নিয়ে বেটে নিতে হবে )
  • তোপসে মাছ ৪টে
  • কাঁচালঙ্কা বাটা ১চা চামচ
  • গোলমরিচের গুঁড়ো ১/২ চা চামচ
  • হলুদ ১/২ চা চামচ
  • পাতিলেবুর রস ১ টেবিল চামচ
  • নুন স্বাদমতো
  • সর্ষের তেল আন্দাজমতো।

প্রণালী :

একটি পাত্রে মাছগুলো নিয়ে লেবুর রস মাখিয়ে ১০মিনিট রেখে দিন। একটি বাটির মধ্যে ডালবাটা, কাঁচালঙ্কা বাটা, হলুদ, গোলমরিচের গুঁড়ো ও নুন দিয়ে ভালো করে ফেটিয়ে একটা ব্যাটার বানিয়ে নিন। তাতে তোপসে মাছ এপিঠ ওপিঠ করে ভালোভাবে ডুবিয়ে নিন। তারপর ডুবো তেলে ভেজে তুলে নিলেই তৈরী মটর তোপসে। গরম ভাত ও ডালের সাথে এটি খেতে ফাটাফাটি লাগবে।

কি কেমন লাগলো এই রেসিপিগুলো ? জমে গেলো তো ! তাই নববর্ষের প্রথম দিন এই রেসিপির  থেকে আপনার পছন্দমতো রেসিপিটি বেছে নিয়ে বানিয়ে ফেলুন। এইটুকু বলতে পারি আপনার পরিবারের সদস্যরা আপনার হাতের খাবার খেয়ে হাত চাটতে বাধ্য হবেন।  আর এই রেসিপিগুলো কেমন লাগলো আমাদের জানাতে ভুলবেন না যেন।

আপনাদের জানাই শুভ নববর্ষের শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন। সাবধানে থাকুন ও সুস্থ থাকুন।

Was this article helpful?
The following two tabs change content below.

Sruti Bhattacharjee

scorecardresearch